ফণ্ট ডাউনলোড

নীড় অনুষ্ঠান

অনুষ্ঠান


ঘরোয়া শ্রোতার আসরের বাইরে ছায়ানটের প্রথম অনুষ্ঠান পুরোনো গানের আসর। ষাটের দশকের মাঝামাঝি সময়ে ঢাকার ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্‌স্টিট্যুট মিলনায়তনের ওই অনুষ্ঠান পরিচালনা করেছিলেন আবদুল আহাদ। সমগ্র বাংলার বিশিষ্ট সুরকার-গীতরচয়িতাদের সঙ্গীত পরিবেশন করে বাঙালি ঐতিহ্য স্মরণ করা হয় অনুষ্ঠানে। পাকিস্তানি শাসকেরা তখন পর্যন্ত কোনোরকম সহ্য করছে রবীন্দ্রনাথের গান। ভাবতে পারে নি বিদ্যাপতির গান বা দ্বিজেন্দ্রলাল-অতুলপ্রাসাদ-রজনীকান্ত প্রমুখ গীতিকারের গান এদেশের ঐতিহ্য বলে স্বীকৃত হতে পারে। উন্মুক্ত অঙ্গনে প্রকৃতির কাছাকাছি ছায়ানটের প্রথম অনুষ্ঠান বসন্ত ঋতুবরণ। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বর সংলগ্ন স্যার সলিমুল্লাহ হলের প্রাধ্যক্ষের আবাসের পাশে হয়েছিল অনুষ্ঠান। বাংলা নববর্ষ উদযাপন এবং জাতীয় পর্যায়ের নানা আয়োজনসহ বর্তমানে বছরে চল্লিশটিরও বেশি অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে ছায়ানট।

 তারিখ  নাম   স্থান
১৮ পৌষ ১৪১৬ শুদ্ধসঙ্গীত-উৎসব ১৪২৫ ছায়ানট মিলনায়তন
১৮ পৌষ ১৪১৬ বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ
১৮ পৌষ ১৪১৬ শ্রোতার আসর: অগ্রহায়ণ ১৪২৫ রমেশচন্দ্র দত্ত স্মৃতি মিলনকেন্দ্র, ছায়ানট সংস্কৃতি-ভবন
১৮ পৌষ ১৪১৬ শ্রোতার আসর: কার্তিক ১৪২৫ রমেশচন্দ্র দত্ত স্মৃতি মিলনকেন্দ্র
১৮ পৌষ ১৪১৬ প্রকাশনা অনুষ্ঠান - "গীতবিতান: তথ্য ও ভাবসন্ধান" রমেশচন্দ্র দত্ত স্মৃতি মিলনকেন্দ্র, ছায়ানট সংস্কৃতি-ভবন
১৮ পৌষ ১৪১৬ নৃত্য-উৎসব ১৪২৫ ছায়ানট মিলনায়তন
১৮ পৌষ ১৪১৬ লোকসঙ্গীত অনুষ্ঠান ১৪২৫ ছায়ানট মিলনায়তন
১৮ পৌষ ১৪১৬ ভাষা-শহীদদিবস আজিমপুর সেনাক্যাম্প ও ছায়ানট মিলনায়তন
১৮ পৌষ ১৪১৬ বসন্তের অনুষ্ঠান ১৪২৫ ছায়ানট মিলনায়তন

আয়োজন সবগুলো..

১৭ ফাল্গুন ১৪২৫
বসন্তের অনুষ্ঠান ১৪২৫